ডোনাল্ট ট্রাম্প নির্ভরযোগ্য ব্যক্তি নন,আলোচনায় বসতে নারাজ ইরাণ

নিউজডেস্ক,টাইমস বাংলাঃ   ইরাণের পরমাণু কর্মসূচীকে কেন্দ্র করে ক্রমশ মধ্যপ্রাচ্য উত্তপ্ত হয়ে উঠছে।জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় ইরাণ ও ছয় জাতিগোষ্ঠীর মধ্য স্বাক্ষরিত চুক্তি থেকে বেরিয়ে এসে আমেরিকা ক্রমান্বয়ে ইরাণের উপর সর্বাত্মক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে চলছে।সর্বশেষ নিষেধাজ্ঞায় ইরাণের তেল রপ্তানিকে শুন্য নামিয়ে আনা ও ধাতব শিল্পকে ধংশ করতে আমেরিকা লক্ষ্য নেয়।এমত পরিস্থিতিতে ইরাণ নিজেই পরমাণু চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসার ও হরমুজ প্রনালী অবরোধের হুমকি দিলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরাণের সঙ্গে আলোচনার ইচ্ছা প্রকাশ করে কিন্তু তা খারিজ করে দিয়েছে।

মার্কিন নিউজ চ্যানেল এনবিসি’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ প্রতিক্রিয়া জানান।  ইরান কি আমেরিকার সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি আছে- এমন প্রশ্নের জবাবে তাখতে রাভাঞ্চি বলেন, “আগে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে এই ব্যাখ্যা দিতে হবে তিনি কেন আলোচনার টেবিল থেকে উঠে গেলেন?” তিনি বলেন, ট্রাম্প এমন সময় আলোচনার টেবিল থেকে উঠে গিয়েছিলেন যখন বিশ্ব শক্তিগুলোর পাশাপাশি জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ ওই টেবিলে বসে ছিল।
জাতিসংঘে নিযুক্ত ইরানের স্থায়ী প্রতিনিধি বলেন, “আবার আলোচনায় বসে তিনি যে এভাবে উঠে যাবেন না তার নিশ্চয়তা কোথায়; বিশেষ করে তিনি যখন একের পর এক আন্তর্জাতিক আইন ও চুক্তি লঙ্ঘন করে যাচ্ছেন।”
ইরানকে তার ভাষায় পরমাণু অস্ত্র তৈরি থেকে বিরত রাখার জন্য আলোচনায় বসতে চান বলে ট্রাম্প যে দাবি করেছেন তার জবাবে তাখতে রাভাঞ্চি বলেন, “ইরান যে পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে চায় না তা বোধ হয় ট্রাম্পের জানা নেই।”
তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা আইএইএ ১৪টি ত্রৈমাসিক প্রতিবেদনে বলেছে, ইরান পরমাণু অস্ত্র তৈরির চেষ্টা করছে না। এ ছাড়া, ইরানের সর্বোচ্চ নেতা এই অস্ত্র নিষিদ্ধ করে ফতোয়া জারি করেছেন।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হোয়াইট হাউজে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আমি চাই ইরানি কর্মকর্তারা একটি ভালো চুক্তি স্বাক্ষরের জন্য আলোচনা করতে আমাকে টেলিফোন করুক। এ ধরনের চুক্তি ইরানকে চলমান অর্থনৈতিক সংকট থেকে বেরিয়ে আসতে সহযোগিতা করবে।  ট্রাম্প দাবি করেন, তিনি ইরানিদের কাছ থেকে বেশি কিছু চান না; শুধু চান ইরানিরা পরমাণু অস্ত্র তৈরি না করুক।

আরো পড়ুন :   তেজ বাহাদুর ও তাঁর ছেলেকে খুনের হুমকি দিয়েছিলো বিজেপি, প্রকাশ্যে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য
আরো পড়ুন :   সিবিএসই বোর্ডে রাজ্যের প্রথম ও দেশের তৃতীয় মালদার সুমাইতা

 

ট্রাম্প এমন সময় এ দাবি করলেন যখন পশ্চিমাদের ভাষায় ইরানকে পরমাণু অস্ত্র তৈরিতে বাধা দেয়ার লক্ষ্যে আমেরিকাসহ ছয় বিশ্বশক্তি ২০১৫ সালে তেহরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা সই করে। কিন্তু এই ডোনাল্ড ট্রাম্প গত বছরের মে মাসে গোটা বিশ্বের বিরোধিতা উপেক্ষা করে সেই সমঝোতা থেকে আমেরিকাকে বের করে নেন।

Facebook Comments

Simple Text

Facebook Comments
(Visited 40 times, 1 visits today)
(Visited 40 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *