বিয়েবাড়িতে চেয়ারে বসে খাওয়ায় দলিত তরুণকে পিটিয়ে মারল উচ্চবর্ণের মানুষজন

টাইমস বাংলা ওয়েব ডেস্ক : একবিংশ শতাব্দীতে এসে আজও জাত পাতের জাল থেকে যে মুক্ত হতে পারেনি দেশ, ধারাবাহিক ভাবে উচ্চবর্ণের মানুষের হাতে দলিত তরুণ তরুণীদের নির্মম হত্যা কান্ড কিন্তু সেটাই প্রমান করে |
এবার বিয়েবাড়িতে সবার সঙ্গে বসে খাওয়ায় দলিত এক তরুণকে পিটিয়ে মেরে ফেলল উচ্চবর্ণের মানুষজন। লজ্জাজনক এই ঘটনাটি ঘটেছে দেরাদুনের তেহরি গারওয়াল জেলাতে ।

২৬ এপ্রিল ঘটনাটি ঘটে শ্রীকোট। বেধড়ক মার খাওয়ার পর গুরুতর জখম ২১ বছরের ছেলেটিকে দেরাদুনের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়| তবে শেষ রক্ষা হয়নি।

[আরও পড়ুন : লোকসভা নির্বাচনে হারের আতঙ্কে কি রাজনৈতিক সৌজন্যবোধটুকুও হারাচ্ছেন মোদি? নিন্দায় সরব বিদ্বজনরা                 
আরো পড়ুন : মোদির বিরুদ্ধে ভোটে দাঁড়ানো বিএসএফ জওয়ান তেজবাহাদুরকে আটকানোর চেষ্টা নির্বাচন কমিশনের? ক্ষোভে ফুঁসছে দেশ

রবিবার বিকেলে তাঁর মৃত্যু হয়। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম জিতেন্দ্র দাস। তিনি বাসান গ্রামের বাসিন্দা। ২৯ এপ্রিল জিতেন্দ্রর দিদির অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁদেরই পাড়ার ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।
তাঁর কাকা ভয়াবহ সেই দিনের কথা বলতে গিয়ে জানিয়েছেন, ‘সেই রাতে আমরা শ্রীকোটের এক আত্মীয়ের বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলাম। আমরা একটা সাইডে ছিলাম। জিতেন্দ্র খেতে গিয়েছিল। খাওয়া দাওয়ার পর আমরা আলাদা আলাদা বাড়ি ফিরি। পরদিন আমরা ঘটনাটা শুনি। ওর মা ওকে অবচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে হাসপাতালে নিয়ে যান।’
ছুতোর মিস্ত্রির কাজ করতেন জিতেন্দ্র। মা, দিদি ও ভাই-সহ তাঁর সংসারে তিনিই ছিলেন একমাত্র উপার্জনকারী।

Facebook Comments

Simple Text

Facebook Comments
(Visited 6,126 times, 2 visits today)
(Visited 6,126 times, 2 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *