রাত পোহালেই চাপতে চলেছে জিএসটির বোঝা!

বি‌শেষ প্র‌তি‌বেদন, মোস্তা‌ফিজুর রহমান,টাইমস্ বাংলা: ১লা জুলাই থেকে দেশের কর ব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন আসতে চলেছে ৷চালু হচ্ছে নতুন কর ব্যবস্থা জিএসটি ৷জিএসটি আসলে কি?আদপে মানুষের জীবনে এর প্রভাব পড়বে?আসুন আমরা সংক্ষেপে জিএসটি নিয়ে একটু বোঝার চেষ্টা করি ৷

 

জিএসটি কি?

 

জিএসটির পুরো নাম গুডস এন্ড সার্ভিস ট্যাক্স বা পণ্য পরিষেবা কর ৷এটি পণ্য ও পরিষেবা ব্যবহার করার উপর গন্তব্যভিত্তিক কর ৷জিএসটিতে মূলত উৎপাদক থেকে শুরু করে কনজিউমার পর্যন্ত সকল ধাপে কর আদায়ের ব্যবস্থা থাকছে ৷প্রতিটি ধাপে যে মূল্য যুক্ত হবে তার উপর কর দিতে হবে এবং শেষ বা অন্তিম কনজিউমারকে কর এর ভার বহন করতে হবে ৷জিএসটির একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হল এটি গন্তব্যভিত্তিক কর অর্থাৎ ধরুন আপনি কোনো জিনিস দিল্লিতে বিক্রি করছেন এক্ষেত্রে সেই অঞ্চলের কর্তৃপক্ষের খাতে কর জমা হবে ৷

 

রাজ্যের জিএসটি এবং কেন্দ্রীয় জিএসটি কি?

 

ধরুন আপনি একটি জিনিস কলকাতা থেকে হলদিয়ায় বিক্রি করছেন অর্থাৎ  পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে ব্যবসায়িক কার্যটি সম্পন্ন হচ্ছে এক্ষেত্রে দুই রকম কর প্রযোজ্য হবে রাজ্যের বসানো জিএসটি এবং কেন্দ্রের বসানো জিএসটি ৷একটি জিনিসের উপর ২০ টাকা কর ধার্য হলে এক্ষেত্রে রাজ্যের খাতে আসবে ১০ টাকা আর কেন্দ্রের খাতে যাবে ১০টাকা ৷

 

ইন্টিগ্রেটেড জিএসটি কি?

 

ধরুন আপনি কোনো সামগ্রি পশ্চিমবঙ্গ থেকে বিক্রি করছেন বিহারে ৷অর্থাৎ যখন দুটি রাজ্যের মধ্যে কোনো সামগ্রি কেনাবেচা হলে সেক্ষেত্রে ইন্টিগ্রেটেড জিএসটি প্রযোজ্য হবে ৷ ইন্টিগ্রেটেড জিএসটি এটি কেন্দ্রের বসানো জিএসটি এবং রাজ্যের বসানো জিএসটির যোগফলের সমান হবে ৷

 

কেন এই জিএসটি?

 

জিএসটি চালু হলে প্রায় একসঙ্গে ১৭ রকমের কর,সেস,সারচার্জ উধাও হয়ে যাবে ৷এবং এর ফলে শিল্প ও ব্যবসার অনেক সুবিধা হবে৷কেন্দ্রের উৎপাদন শুল্ক,পরিষেবা কর ,আমদানি শুল্কের মতো রাজ্যের সেলস ট্যাক্স ,ভ্যাটেরও কোনো অস্তিত্ব থাকবে না ৷

 

জিএসটিতে করের হার কেমন হবে?

 

জিএসটিতে মোট ছয় রকমের কর থাকছে শূন্য,০.২৫%,৫%,১২%,১৮%ও ২৮% ৷

 

কীসের দাম কমতে পারে?

 

কেন্দ্র সরকার দাবি করছেন চাল,গম,ডাল ,আটা,ময়দা,বেসন,মুড়ি,নুন,সার,চিনি,কফি,সার,ওষুধের মতো সামগ্রির দাম অনেকখানি কমবে৷

 

কীসের দাম বাড়তে পারে?

 

কেবল টিভি,ডিটিএচ,মোবাইল,মোবাইলের টাকা ভরার খরচ,মাল্টিপ্লেক্সে সিনেমা দেখা,দামি হোটেলের ভাড়া,সোনার গহনা প্রভৃতি জিনিসের দাম বাড়তে চলেছে ৷

 

কোন কোন জিনিস জিএসটির আওতায় পড়বে না?

 

বিদেশী মদ,পেট্রোলিয়াম পণ্য,প্রাকৃতিক গ্যাস,হাই স্পিড ডিজেল ,বিমানের জ্বালানী,ইলেক্ট্রিসিটিকে জিএসটির আওতায় আনা হচ্ছে না ৷

 

জিএসটির কি কি সুফল পেতে পারে দেশ?

 

ভারতে পরোক্ষ কর সংস্কারে জিএসটি একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ ৷এটিতে কেন্দ্র ও রাজ্যের একাধিক করকে বিলুপ্ত করে মাত্র একটি করএ সংহত করা হচ্ছে ৷উপভোক্তাদের উপর সবচেয়ে বড়ো লাভ বর্তমানে পণ্যের উপর সব মিলিয়ে যে ২৫—৩০% কর বসে তার বোঝা অনেকটা কমবে ৷জিএসটি চালু হলে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে আমাদের উৎপাদন আরো বেশি প্রতিযোগীতামূলক হয়ে উঠবে ৷সমীক্ষায় দেখা গেছে জিএসটি চালু হলে দেশের অর্থনৈতিক বৃদ্ধি শুরু হবে ৷জিএসটি চালু হলে রাজ্য ও কেন্দ্রের আয় বৃদ্ধি পেতে পারে ৷মোট বাণিজ্য এবং কর আনুগত্য বাড়বে ৷এই ব্যবস্থায় স্বচ্ছতা থাকার কারণে তদারকিতেও সুবিধা হবে ৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *